বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ১০:৫৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
ঝিকরগাছায় কৃষিতে উৎপাদন বাড়িয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে কৃষকের অভাবনীয় সাফল্য -উপপরিচালক মনিরামপুরে এসএম ইয়াকুব আলীর পক্ষে কম্বল বিতরণ শোক সংবাদ, শোক সংবাদ শোক সংবাদ, শোক সংবাদ সকল মান-অভিমান ভূলে নৌকাকে বিজয়ী করতে হবে – জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি-মিলন বাসায় ফিরেছেন প্রিয় নেতা ভাসানচর থানা উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কুষ্টিয়া নাগরিক কমিটি গঠন: সভাপতি ডাঃ মুসতানজিদ। সাধা: সম্পাদক ড. সেলিম তোহা। যুগ্ম সাধা: সম্পাদক সামসুল ওয়াসে সন্ত্রাসী মোস্তাকের টার্গেট নিরীহ মানুষ ও ব্যবসায়ীদের। প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা। ঝিকরগাছার গদখালি ফুলের রাজধানীতে করোনাকালীন সময়ে হচ্ছে না ফুল বিক্রি : চলতি বছরে থাকছে না কোন টার্গেট
ঘোষণা :
নিউজ আর এস এ আপনাকে স্বাগতম  

রাজাপুরে বৃদ্ধ স্ট্রোকের রোগীর পরিবারকে হয়রানি ও নির্মানাধীন দোকানের দেয়াল ভাঙচুরের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

Reporter Name / ৮৮ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শনিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০২০, ৪:২২ অপরাহ্ন

ঝালকাঠি জেলা প্রতিনিধিঃ

ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার কেওতা গিঘড়া গ্রামের বৃদ্ধ স্ট্রোকের রোগী মোফাজ্জেল হোসেন ও পরিবারকে হয়রানি এবং সতর্ক বা নোটিশ ছাড়াই বাজারের নির্মানাধীন দোকানের দেয়াল ভাঙচুরের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। শনিবার সকালে রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করে তিনি লিখিত অভিযোগ করে জানান, দীর্ঘ ৪০ বছর ধরে ঘিগড়া মৌজার জেএল নং২৫, বিএস ১৪১ নং খতিয়ানের বিএস ২৭৯নং দাগের ১১ শতাংশ জমির উপরে বসবাস করছি। সামনে দিয়ে পিংড়ি বলারজোর পাকা সড়ক এবং বিপরীত পাশে কেওতা ঘিগড়া নেছারিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার জমি রয়েছে। কিন্তু মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ ঐ সড়ক ডিঙ্গিয়ে আমার বসতবাড়ির মধ্যে জমি পাবে বলে মিথ্যা হয়রানি করে আসছে। প্রতিপক্ষরা বার বার থানা পুলিশ, উপজেলা ভূমি অফিস, ইউএনও এমনকি জেলার এডিসিকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে ভুল বুঝিয়ে আমাকে হয়রানি করে আসছে। ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, বাড়ির সামনে সড়কের পাশে ২ বছর পূর্বে পাকা ৪টি দোকান নির্মাণ করি। গত ১০ ডিসেস্বর (বৃহস্পতিবার) দুপুরে প্রতিপক্ষরা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) অনুজা মন্ডলকে ভুল বুঝিয়ে আমার নির্মাণাধীন দোকানের পশ্চিম ও উত্তর পাশের দেয়াল ভেঁঙ্গে ফেলে। ওই জমির পাকা দোকানের দেয়াল ভাঙ্গার আগে আমাদেরকে কোন নোটিশ বা মেপে কোন সীমানা বা চিহ্ন দেওয়া হয়নি, দেয়া হয়নি কোন সংকেতও। দোকান ভাঙ্গার কয়েক মিনিট আগে ওই জমির বৈধ কাগজ অনুজা মন্ডলকে দেখানোর জন্য কাগজ আনতে বাড়ির ভিতরে যাই। কাগজ নিয়ে ফিরে আসার আগেই আমার দোকান ভেঙ্গে ফেলা হয়। এতে কয়েকলাখ টাকা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নিরীহ মালিক মো. মোফাজ্জেল হোসেন। আনুমানিক বছর খানেক আগে উপজেলা ভূমি অফিসের সার্বেয়ার মোঃ রফিকুল ইসলাম ওই জমি মেপে আমাকে অভয় দেয় এবং বলে ওই জমিতে মাদ্রাসার কোন জমি নাই, ওটা সম্পূর্ণ আলাদা দাগ (২৭৯)। ওই জমির হয়রানি মিটিয়ে দিতে ৫০ (পঞ্চাশ) হাজার টাকার ঘুষ দাবি করেন রফিক। আমি তাকে টাকা না দিতে পারায় ক্ষুদ্ধ হয়ে ১০ ডিসেম্বর উপজেলা ভূমি কমিশনার অনুজা মন্ডলের সাথে গিয়ে সার্ভেয়ার রফিক নিজ হাতে হামার দিয়ে আমার পাকা দোকানের ওয়াল ভেঙ্গে ফেলে। এতে কয়েকলক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলেও দাবী করেন মোফাজ্জেল হোসেন। তিনি আরো জানান, স্ট্রোকের রোগী হওয়া সত্বেও মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের কোন বৈধ কাগজপত্র না থাকলেও আমাকে বারবার মিথ্যা মামলা ও প্রশাসন দিয়ে হয়রানি করে আসছে। মামলা চললাম থাকায় কোটে আপিল করা হয়েছে, যাহা চলমান। এসব হয়রানির হাত থেকে বাচতে এবং সঠিক সমাধান পেতে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন মো. মোফাজ্জেল হোসেন ও তার পরিবার। রাজাপুর ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার রফিকুল ইসলাম ঘুষ দাবির বিষয়টি অস্বীকার করে জানান, দোকান ভাঙা হয়নি। কাজে বাধা দেয়া হয়েছে। কেওতা ঘিগড়া ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা ওলিউর রহমান জানান, ২ বার আদালতের রায় পেয়েছি এবং মাস তিনেক পূর্বে সদ্য সাবেক উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহাগ হাওলাদার তাকে সতর্ক করেছিলেন। দোকানের দেয়াল ভাঙার পূর্বে তাকে কোন নোটিশ বা সংকেত দেয়া হয়নি। রাজাপুরের সহকারি কমিশনার (ভূমি) অনুজা মন্ডল জানান, ওই জমি নিয়ে আদালতে মামলা ও রায় থাকার পরেও আরও জটিলতা থাকায় নতুন করে কাজ শুরু করলে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ওই কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

কুষ্টিয়ায় আরো এক পান্না মাষ্টারের সন্ধান..! লম্পট রাজুর বিরুদ্ধে একাধিক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ প্রতিবাদ করায় ছাত্রীকে হুমকি, নিরাপত্তাহীনতা ও বিচার চেয়ে থানায় এজাহার দায়ের সোহেল রানা কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়ায় এক লম্পটের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি ও কু-প্রস্তাবের অভিযোগ উঠেছে । ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীকে বিভিন্ন মাধ্যমে হুমকি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করেছে ওই লম্পট। জানা যায়, কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার গোয়ালগ্রাম মধুগাড়ী এলাকার আরজ উল্লাহ’র ছেলে রাজু আহাম্মেদ যার বর্তমান ঠিকানা কুষ্টিয়া শহরের কাটাইখানা মোড়ের একটি বেসরকারি নার্সিং ইনস্টিটিউটের কোর্স সমন্বয়কারী। অত্র ইনস্টিটিউটের ২য় বর্ষের এক ছাত্রীর সাথে পরিচয় হয় তার। পরিচয়ের পর একপর্যায়ে ওই ছাত্রীকে বিভিন্ন ভাবে কু-প্রস্তাব দেয় লম্পট রাজু। কিন্তু ওই ছাত্রী তার কু-প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায় রাজু ওই ছাত্রীর ওড়না ধরে টানাটানি, শরীরে বিভিন্ন স্থানে হাত দেওয়া সহ বিভিন্ন ভাবে দীর্ঘদিন ধরে উত্যক্ত করে আসছিল রাজু। বিষয়টি কাউকে জানালে ওই ছাত্রীকে পরীক্ষায় ফেল করিয়ে দেওয়ার হুমকি দেয় ওই লম্পট। ভীত ওই ছাত্রী জানায়, লম্পট রাজু জোরপূর্বক ভাবে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এব্যাপারে ওই ছাত্রী নিরাপত্তাহীনতা ও বিচারের দাবী করে কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন।একাধিক সূত্র জানায়, এরকম আরো কয়েকজন শিক্ষার্থীদের ভয়ভীতি দিয়ে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ার চেষ্টা করে লম্পট রাজু। তার ফাঁদে পড়ে অনেকেই সর্বঃস্ব হারিয়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে। ওই ছাত্রীর এজাহারের ভিত্তিতে কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি গোলাম মোস্তফার নির্দেশে ওসি তদন্ত অভিযোগকারী ওই ছাত্রীসহ ভুক্তভোগীদের জিজ্ঞাসাবাদ করে। পরবর্তীতে কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা বাদী ও ভুক্তভোগীদের জিজ্ঞাসাবাদ করে সত্যতা পায়। তিনি জানান, নারী নির্যাতনকারী অপরাধী যেই হোক তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অতিদ্রুত অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এক ক্লিকে বিভাগের খবর